মঙ্গলবার   ডিসেম্বর ১ ২০২০   ১৭  অগ্রহায়ণ  ১৪২৭


কুমিল্লার মুরাদনগরে সাংবাদিক শরিফুল আলম চৌধুরীকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে সন্ত্রাসীরা ৷

Admin user

Updated 20-Dec-01 / জাতীয় /   |  Staff Reporter
News IMage

কুমিল্লার মুরাদনগরে সাংবাদিক শরিফুল আলম চৌধুরীকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে সন্ত্রাসীরা ৷ তার বৃদ্ধ বাবা-মাকে পর্যন্ত কোপানো হয়েছে ৷ বোনের শ্লীলতাহানির চেষ্টা চালানো হয় ৷

স্থানীয় দারোরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহজাহানের বিরুদ্ধে খবর প্রকাশের জের ধরে চেয়ারম্যানের নির্দেশে এই বর্বর হামলা হয় বলে শরিফুলের মা-বাবা অভিযোগ করেছেন ৷ ইতোমধ্যে পুলিশ ওই চেয়ারম্যানকে গ্রেপ্তার করেছে ৷

সাংবাদিক শরিফুলের বাবা মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন চৌধুরী বলেন, "দারোরা ইউপি চেয়ারম্যান শাহজাহানের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, অনিয়ম ও স্বজনপ্রীতির সংবাদ প্রকাশ করে আমার ছেলে ৷ এতে ক্ষিপ্ত হয়ে তিনি আমার ছেলেকে প্রাণনাশের হুমকি দেন ৷ শরিফের বিরুদ্ধে একাধিক মিথ্যা মামলা দেওয়া হয় ৷

নিরাপত্তার কথা ভেবে শরিফুল একমাস বাড়ির বাইরে ছিলেন ৷ গত সপ্তাহে তিনি বাড়িতে আসেন ৷ শরিফ বাড়িতে আছেন, এ খবর পেয়ে শাহজাহানের লোকজন বাড়িতে ঢুকে তাকে বাড়ির উঠানে টেনে নিয়ে দা দিয়ে কুপিয়ে, হাতুড়ি ও লোহার পাইপ দিয়ে পিটিয়ে তার দুই হাত-পা ভেঙে দেয় ৷ 

মুক্তিযোদ্ধা বাবা ছেলেকে রক্ষায় এগিয়ে গেলে তাকেও কুপিয়ে-পিটিয়ে আহত করা হয় ৷ তাদের মারধরে শরিফুলের মায়ের বাম হাত ভেঙে গেছে ৷

সাংবাদিক শরিফুলের বোন সুলতানা চৌধুরী মুন্নী বলেন, "আমাকে ঘরে পেয়ে সন্ত্রাসীরা শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে ৷ আমি তাদের হাতে কামড় দিয়ে ছুটে গিয়ে প্রতিবেশিদের বাড়িতে গিয়ে ইজ্জত রক্ষা করি ৷

একজন ইউপি চেয়ারম্যানের ক্ষমতার এত জোর" শরিফুল তার বিরুদ্ধে কি রিপোর্ট করেছিলেন প্রাথমিকভাবে জানতে পারিনি ৷ তবে এই বর্বরতা দেখে অনুমান করে নিচ্ছি কতটা ভয়ংকর হতে পারে এই চেয়ারম্যান ৷ ভাবলেই গা শিউরে ওঠে ৷ এই বর্বর ক্ষমতাধর চেয়ারম্যানের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি জানানো হয়।

সর্বশেষ